আজ জেলা বৈঠক শুরু করছেন তৃণমূল সুপ্রিমো, তালিকার শীর্ষে রয়েছে সাগরদিঘি -BTVNews24


দু’‌দিন আগেই জেলা সভাপতি থেকে শুরু করে শীর্ষ নেতাদের নিয়ে বৈঠক করেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রাক্কালে জেলায় জেলায় দলের সংগঠনকে আরও শক্তিশালী করে তুলতে তিনি বেশ কিছু নির্দেশ দেন। তার মধ্যে একটি হল, ভার্চুয়াল মাধ্যমে তিনি জেলা নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করবেন। সেখানের হাল–হকিকত জেনে আশু করণীয় কাজ কি সেটা বাতলে দেবেন। আজ, রবিবার তাঁর জেলা বৈঠকের শুরু হচ্ছে। সেখানে সদ্য উপনির্বাচনে পরাজিত মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘিকে তালিকার প্রথম স্থানে রাখা হয়েছে।

সাগরদিঘির উপনির্বাচনে বাম–সমর্থিত কংগ্রেস প্রার্থী বাইরন বিশ্বাসের কাছে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী দেবাশিস বন্দ্যোপাধ্যায় প্রায় ২৩ হাজার ভোটে পরাজিত হন। তাই আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে যাতে সাগরদিঘির প্রভাব না পড়ে তার জন্যই এই জেলা নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক। এমনকী ভার্চুয়াল বৈঠক করার জন্য যে জেলার তালিকা করা হয়েছে সেখানে মুর্শিদাবাদের সাগরদিঘিকেই প্রথম স্থানে রাখা হয়েছে। সংখ্যালঘু ভোট ব্যাঙ্ক অটুট রাখতেই তালিকার প্রথম স্থানে সাগরদিঘি বলে মনে করা হচ্ছে।

আজ, রবিবার দুপুর দেড়টা নাগাদ মুর্শিদাবাদের তৃণমূল নেতা–নেত্রীর সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠক করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইতিমধ্যেই জেলার বিধায়ক, সাংসদ–সহ দুই সাংগঠনিক জেলা সভাপতি, চেয়ারম্যানকে উপস্থিত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এই বৈঠকের পর করা হবে প্রার্থী বাছাই। সমস্ত জেলার সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠকের পর প্রার্থী বাছাইয়ের কাজ শুরু হবে। প্রার্থী বাছবেন স্বয়ং তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগে করতেন রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি। সবার সঙ্গে আলোচনা করে।

তবে এবার তৃণমূল সুপ্রিমোর সামনে যে নামগুলি আসবে প্রার্থী হিসাবে সেটার প্রক্রিয়া অভিনব বলে সূত্রের খবর। তৃণমূল সূত্রে খবর, কালীঘাটের বৈঠকে ইটাহারের বিধায়ক তথা সংখ্যালঘু সেলের সভাপতি মোশারফ হোসেনের সঙ্গে সিদ্দিকুল্লা চৌধুরীকে বাড়তি দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এই গোটা বিষয়টি নিয়ে মুর্শিদাবাদের সাংসদ আবু তাহের খান বলেন, ‘দলের ত্রুটিবিচ্যুতি ঠিক করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কিন্তু দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের গ্রহণযোগ্যতাও মাথায় রাখতে হবে।’

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup



Source link

Leave a Comment